মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৩ মার্চ ২০১৯

এক নজরে

 
ক) আবিষ্কার ও খনি উন্নয়ন পটভূমি
 
০১. আবিষ্কারঃ ১৯৭৩-৭৪, জিওলজিক্যাল সার্ভে অব বাংলাদেশ
০২. সম্ভাব্যতা যাচাই সমীক্ষাঃ ১৯৭৬-৭৭, এসএনসি, কানাডা
০৩. হাইড্রোজিওলজিক্যাল সমীক্ষাঃ ১৯৮৪-৮৫, অস্ট্রেলিয়ান গ্রাউন্ড ওয়াটার কোম্পানি লিমিটেড
০৪.  ক) শিলার প্রকার : গ্রানোডায়োরাইট, গ্রানাইট, নীস (Gneiss) ইত্যাদি 
        খ) রাসায়নিক উপাদান : SiO2 - ৫৬.৬৪%, R2O3 - ৩০.৭৯%, অন্যান্য- ১২.৫৭%
        গ) কম্প্রেসিভ স্ট্রেংথ : ২৪,০০০ পিএসআই
        ঘ) স্পেসিফিক গ্রাভিটি : ২.৫৬ - ২.৮১ (গড়- ২.৭০)
        ঙ) হার্ডনেসঃ ৬.৫ মোহ’স হার্ডনেস স্কেল
০৫. খনি নির্মাণ করার জন্য পেট্রোবাংলা ও নামনাম এর মধ্যে চুক্তি সাক্ষরের তারিখ :
        ক) প্রধান চুক্তিঃ ২৭.০৩.১৯৯৪
        খ) সম্পুরক চুক্তিঃ ০৬.০৩.২০০৩
        গ) ১ম সাইড লেটার এগ্রিমেন্টঃ ৩০.১২.২০০৪
        ঘ) ২য়  সাইড লেটার এগ্রিমেন্টঃ ৩০.০৪.২০০৭
        ঙ) ৩য়  সাইড লেটার এগ্রিমেন্টঃ ০৪.১০.২০০৯
৬. ফিজিক্যাল কার্যক্রম শুরুঃ ২০.১০.১৯৯৪
৭. শর্তযুক্ত খনি হ্যান্ড ওভার/টেক ওভার এবং বানিজ্যিক উৎপাদন শুরুঃ ২৫.০৫.২০০৭ তারিখে খনি শর্তযুক্ত হ্যান্ড ওভার/টেক ওভার নেওয়া হয় এবং একই দিনে বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়। 
৮. প্রকল্পের সমপ্তি এবং খনি হ্যান্ডওভার ও টেকওভার এর তারিখঃ ০৪.১১.২০১০
৯. প্রকল্পের পরামর্শক প্রতিষ্ঠানঃ মেসার্স কোপেক্স এস.এ, পোল্যান্ড
১০. চুক্তির প্রকার এবং চুক্তি মূল্যঃ টার্ণ কি, ১৫৮.৮৪৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার 
১১. প্রকল্প ব্যয় (লক্ষ টাকায়) (৩য় সংশোধিত পিপি অনুসারে):
 
স্থানীয় মুদ্রা  বৈদেশিক মুদ্রা   মোট
 ৩৩১১০.০৬ টাকা. ৬৯৩৮৮.২৫ টাকা.  ১০২৪৯৮.৩১, 
 ৫৭.০৮৬ মা. ড. ১৪০.৮০৩ মা. ড. ১৯৭.৮৮৯
 
১২. অর্থায়নের উৎস : বৈদেশিক উৎস(সাপ্লাইয়ারস ক্রেডিট) ১০৩.৭৪৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, স্থানীয় উৎস এডিপির অধীনে জিওবি- ৯৪.১৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (ডাউন পেমেন্ট ও অগ্রিম পেমেন্ট অন্তর্ভুক্ত)
১৩. খনি হতে পাথর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রাঃ তিন শিফটে ৫,৫০০ মে. টন প্রতি দিন
১৪ প্রবেশ পদ্ধতিঃ দুইটি ভারটিক্যাল শ্যাফট দ্বারা
১৫. শ্যাফট : স্কিপ শ্যাফটঃ ৩৭৯.৯ মি. ; কেইজ শ্যাফটঃ ৩৩০.৫ মি. ; উভয়েই ৫ মি. চওড়া
১৬ পাথর আহরণ পদ্ধতিঃ সাব লেভেল ওপেন স্টোপিং মেথড
১৭. প্রত্যেক স্টোপের আকারঃ ২৩০ মি. x ২০ মি. x ৬০ মি.
 
খ)  খনি ব্যবস্থাপনা ও উৎপাদন চুক্তিঃ
 
১. চুক্তির নামঃ ম্যানেজমেন্ট অব অপারেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট, প্রডাকশন, মেইনটেনেন্স এন্ড প্রভিশনিং সার্ভিসেস অব মধ্যপাড়া হার্ডরক মাইন
    কন্ট্রাকটরঃ জার্মানিয়া ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি)
    চুক্তি স্বাক্ষরের তারিখঃ ০২.০৯.২০১৩
    চুক্তি মূল্যঃ ১৭১.৮৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (বৈদেশিক- ১২৮.৪৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, স্থানীয়- ৪৩.৪২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)
    চুক্তির সময়কালঃ ৬ বছর (১৪.০২.২০১৪ হতে ১৪.০২.২০২০)
    উৎপাদন লক্ষ মাত্রাঃ ৯.২ মিলিয়ন মেট্রিক টন
    স্টোপ ডেভেলপমেন্ট (উৎপাদন ইউনিট): ১২ টি
 
গ) কোম্পানির অধীনে প্রকল্পঃ 

১।

প্রকল্পের নাম

:

“ফিজিবিলিটি স্টাডি ফর গ্রানাইট স্লাব প্রিপারেশন এন্ড এনহ্যান্সমেন্ট অব স্টোন প্রডাকশন বাই এক্সপানশন অব মধ্যপাড়া মাইন”।

২।

প্রকল্প ব্যয়

:

৪,৮১২.৩৯ (৩৬৫৭.১০) লক্ষ টাকা 

৩।

বাস্তবায়নকাল

:

নভেম্বর ২০১৭ হতে আগস্ট ২০১৯ ( ১ম সংশোধন অনুযায়ী )

৪।

পিএফএস অনুমোদনের তারিখ

:

২১-১২-২০১৭ (মূল), ২৬-০৮-২০১৮ (১ম সংশোধিত)

৫।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য

:

সম্ভ্যাব্যতা যাচাই সমীক্ষার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে মধ্যপাড়া খনি এলাকা সম্প্রসারণ করে গ্রানাইট শিলা স্লাব আকারে উত্তোলন এবং গ্রানাইট শিলার উৎপাদন বৃদ্ধি করা।

৬।

প্রকল্পের মূল কার্যক্রম

:

  • টপোগ্রাফিক সার্ভে ৯ বর্গ কিলোমিটার;
  • ২-ডি সাইসমিক সার্ভে ৬.২৫ লাইন কিলোমিটার;
  • কোর হাউজ নির্মাণ;
  • ১০টি বোর হোল ড্রিলিং (৮টি এক্সপ্লোরেটরি ও ২টি অবজারভেটরি);
  • ইআইএ কার্যক্রম;
  • ফাইন্যান্সশিয়াল/কষ্ট ইকনোমিক এনালাইসিস;
  • ডিজাইন প্রজেক্ট রিপোর্ট (গ্রানাইট শিলা স্লাব আকারে উত্তোলন এবং বাৎসরিক ৩৩ লক্ষ মেঃ টন গ্রানাইট শিলার উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি খনির বেসিক ডিজাইন)।

Share with :

Facebook Facebook